আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি বরাহেও আছেন, বিষ্ঠাতেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি বোরখাতেও আছেন, বিকিনিতেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি জলাশয়েও আছেন, মলাশয়েও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি উটমূত্রেও আছেন, কামসূত্রেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি আরশেও আছেন, ঢেঁড়শেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি হাশরেও আছেন, বাসরেও আছেন

রবিবার, ১১ জুন, ২০১৭

ইমানুলের ধর্মকথা- ১০

লিখেছেন ইমানুল হক

১২.

এ আল্লা। কলেজ ইনবার্সিটিগুলা সব তুমি দ্বংস করি দেও। আমি আইজগা বুইচ্চি যে আমাগের নবিজি ক্যান জিবনেও একডা কলেজ ইনবার্সিটি বানায় নাই আর ক্যান আল্লাও এই ব্যাফারে কুরানে কিচু বলে নাই বা ক্যান হাপেজ মলানারা এইসব ততাকতিত কলেজ ইনবার্সিটি বিত্তিক শিক্কার ফ্রতি বিদ্দেষ আর মাদেসা শিক্কার ফ্রতি ফেয়ার। যার জইন্য আল্লাও কুরানে স্কুল, কলেজ, ইনবার্সিটি খুলার কতা কুনযাগায় কয় নাই। ইক্টু আগে এক  ফুলার লগে দেহা। ফুলাডা অইল ছামাদ মাজির বাইস্তা। ঢাকার নিকি সেরা ইনবার্সিটিত ফড়ে। আমি আইজ কাজোল সুরমা, আতর ফাঞ্জাবি ফরি হাটে যাইতে কালে সামনে পরছে, কয়, "চাচা ক্যামন আছেন?" বালা আছি বাবা। তুমি ক্যামন আছো?" আমি জিগাই লাম। ফোলাডা কইল, "বালা আচি চাচা।" আমি দেকি  ফুলাডা ঢাকা যাই ইক্টু মডান অয়েচে মুনকয়। কারন আমাক কুন সালাম দেয় নাই (থাক তেমুন রাগ কইল্যাম না)। ফুলাডারে জিগাইলাম, "ঢাকায় তাকতে কষ্ট অয়নি বাবা?" ফুলার উত্তর "জ্বী চাচা কি আর করমু গিরাম গঞ্জে বালা ইস্কুল,কলেজ নাই, কালি মাদেসা আর মাদেসা। এত মাদেসা শিক্কা করি কি অইব? ইডা ত পুরানি আমলের শিক্কা। ইডার মইদ্দে ত কুন আদুনিক শিক্কা বা বিজ্ঞানের কুন ছুয়া নাই।" এই কতা হুনি আমার টান্ডা রক্ত মাতায় উডি গেল। মুমিনের রক্ত, অনুচিত কতা হুইনলেই রক্ত চরি যায়। কুনমতে রাগ দমাইয়া জিগাইলাম, "ইস্কুল কলেজ ফরি দ্বিনি শিক্কা বুইজলা না বাবা। দ্বীনি শিক্কার অনেক পজিলত। এসম্পর্কে একডা হাদীস আছে,  "আবু হুরাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বন্নিত। রসূলুল্লাহ্ চল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াচাল্লাম বলেচেন : যেই ব্যক্তি দ্বীনি ইলম অজ্জনের উদ্দেশ্যে কুন পত অবলম্বন করে আল্লা তার জইন্য জান্নাতের পত সুগম করে দেয়। কুন একদল লুক যহন আল্লা তালার গড় সমূয়ের মইদ্দে কুতাও একত্র অয়ে আল্লার কিতাব পাট আর পরস্পর আলোচনা কইত্তে থাহে তহন তাগের উফর সাকিনা অবতীন্ন অতে থাহে, আল্লার রঅমত ও অনুগ্রঅ তাগেরকে ঢেকে দেয়, ফিরিশতাগণ তাদেরকে বেষ্টন করে নেয় আর আল্লা তাঁর নিকটবত্তি পেরেশতাগের সামনে তাগের উল্লেখ করে তাকেন"


(মুসলিম) বুইচ্চনি?  ফরকালে ত তুমাগের এই শিক্কার কুন দাম নাই, মাদেসার দ্বীনি শিক্কাই একমাত্তর অবলম্বন মুচলমানগের জইন্য। চাচা ফরকাল কি? ফুলাডার আবার ফ্রইশ্ন। এইবারকার ফ্রইশ্নডা কমন ফড়ি গেল। বইল্যাম, "ফরকাল ওইল সেই জাগা যেহানে মানুষেক বিচারের ফর বেস্ত বা দুজকে দেয়া অবি। সেকানে মানুষ আজিবন তাইকবে।" আমি এইবার যে যুক্তি দি দিসি থামা চাড়া উপায় নাই। এইবার নিচ্চই তেমে যাবে ইন্সাল্লা। "চাচা বেস্ত দুজক ক্যামুন অবি?" ফুলার আবার ফ্রইশ্ন। কি যে করি এই ফাগলেক নি! "বেস্তে অনেক সুক তাইকবে আর দুজকে অনেক কষ্ট। যেইডা সুদু ময়ান আল্লাফাকই জানে।" আমি জবাব দি কুশির ঢেকুর তুইল্যাম। "চাচা সবই যুদি আল্লাফাক জানে তালিফরে ত মুনকার-নকির পেরেশতা লাগে না পাপ-পুন্য ইসাবের লাই। আর যুদি আল্লাফাকই সব জানে তালি পেরেশতা রাকি তার লাব কি চাচা?" হারামির ফুতে আবার ফ্রইশ্ন কইল্য। মেজাজডা চড়ি গেল, মন্ডা চাইছিল ঠাডাই এক্কান মারি, এত কলেজ ইনবার্সিটি ফড়ি দ্বীনি শিক্কাই শিকতে ফাড়ে নাই। শ্যাষে জবাব কুজি না ফাই তাক বুইজতো না দি বইল্যাম, "তুমি মুমিনের গড়ের ফুলা অই কুরান হাদীস কিচুই জানোনা। এত্ত ইস্কুল কলেজ ফড়ি কি গেয়ান অজ্জন কইল্যা? ইকানে একডা হাদীস বলি, "হযরত উসমান (রাদিয়াল্লাহু আনহু) তেকে বন্নিত । তিনি বইল্যেন , রসূলুল্লাহ্ চল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াচাল্লাম বলেচেন : তুমাগের মইদ্দে সেই ব্যক্তি সর্বোত্তম যে নিজে কুরান শিকে আর অপররে তা শিকায়।" -( বুখারী , তিরমিজী-২৮৪৩)। একানে কিন্তু কুন কলেজ ইনবার্সিটির কতা কিন্তু বলে নাই বুইচ্চ?" এই বইল্যা মনে মনে আস্তাগপিরুল্লা ফইত্যে ফইত্যে হাটের দিক রওনা দিলাম আর বাইবতে তাইক্লাম যে, ইস্কুল কলেজ বন্দ করি দেয়া দরকার কারন ইগুলান অইলো শয়তানের পাঠসালা আর গোড়তরো ইচলামের সত্রু। ইগুলান বন্দ করি আরো বেশি বেশি মাদেসা বানাইয়া ফুলাপাইনগোর দ্বীনি শিক্কা গ্রহনের ব্যাবস্তা কইত্তে অইবো।
 

1 টি মন্তব্য:

  1. হ,মাদেসা মরজিদ থাকা ভাল,বিসেস করে শহরাঞ্চলে।কারন অয়ল পায়কানা পস্রাব করার এক্ষান ভালো জায়গা পাওয়া যায়,চাছা?

    উত্তর দিনমুছুন