আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি বরাহেও আছেন, বিষ্ঠাতেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি বোরখাতেও আছেন, বিকিনিতেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি জলাশয়েও আছেন, মলাশয়েও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি উটমূত্রেও আছেন, কামসূত্রেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি আরশেও আছেন, ঢেঁড়শেও আছেন # আল্যা সর্বব্যাপী – তিনি হাশরেও আছেন, বাসরেও আছেন

শুক্রবার, ২ জুন, ২০১৭

‘ধর্মপচারক’ - অসম যুদ্ধের এক সেনাপতির নাম!


গোলাপ মাহমুদ

সময়টি ছিল ২০১০ সালের শেষার্ধে। আমি তখন মুক্তমনা ব্লগে ইসলাম ধর্ম সংক্রান্ত লিখাগুলোতে নিয়মিত মন্তব্য-কারীদের একজন। 'ধর্মকারী' ব্লগের প্রথম সন্ধান পাই সেখানেই, এক পাঠকের মন্তব্যে পাঠানো 'লিংক' অনুসরণ করে। জানলাম ব্লগটি যিনি পরিচালনা করেন তিনি হলেন 'ধর্মপচারক', যিনি মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন:

"ভাল ধর্ম বলে কিছু নেই। সব ধর্মই ভুয়া ও ফাউল।"

বিভ্রান্তিতে পড়েছিলাম এই ভেবে যে, যে ব্যক্তি বিশ্বাস করেন 'পৃথিবীতে ভাল ধর্ম বলে কিছু নেই', তিনি কী ভাবে 'ধর্মপ্রচারক' নামের এক লেখক ছদ্মনাম (Pen name) পছন্দ করতে পারেন! খেয়াল করে দেখি, ভুলটা আমারই। তিনি হলেন 'ধর্মপচারক', প্রচারক নন! যিনি সমস্ত ধর্মের কুৎসিত ও কদর্য রূপটিকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার সংকল্প নিয়ে যাবতীয় কুসংস্কার ও অজ্ঞতার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমেছেন। যে বিষয়টি আমাকে ভীষণ আকৃষ্ট করে তা হলো, কোনরূপ political correctness এর আশ্রয় না নিয়ে সকল ধর্মের কদর্য রূপটিকে তিনি ব্যাঙ্গ ও বিদ্রূপের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন ও সমমনা লেখকদের পাঠানো এ ধরণের লেখা, ভিডিও, ছবি, কার্টুন, সংবাদ - ইত্যাদি তাঁর ব্লগে নিয়মিত পোষ্ট দিয়ে থাকেন।

এর কয়েক মাস পরের কথা। ই-মেইল যোগাযোগ করলাম

On 14 January 2011 06:58, golap mahmud wrote:

Dear Dhormokery,
I am one of the many readers of your excellent site. I found this video clip very interesting that you may like. I am not sure whether you already posted this clip in your site or not. Thanks a lot.

https://www.youtube.com/watch?v=fgsrnmzxEUY

ঐ দিনই জবাব পেলাম:


From: dhormockery dhormockery@gmail.com To: golap mahmud
Sent: Fri, January 14, 2011 9:03:48 AM

ভিডিওটি চমৎকার। তবে আগেই প্রকাশিত হয়েছে: তাই বলে ভালো কোনও ভিডিও, ছবি, কার্টুন, সংবাদ বা লিংক পেলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
ধন্যবাদ।

golap mahmud To: dhormockery
Sent: Sat, January 15, 2011 12:08:11 AM
অবশ্যই। আপনাকে অনেক ধন্যবাদ এমন একটি অসাধারণ ব্লগ পরিচালনার জন্য। আমরা যাবতীয় গোঁড়ামির বিলুপ্তি চাই। সাফল্য সুনিশ্চিত, সময়ের অপেক্ষা মাত্র। শুভেচ্ছান্তে, - গোলাপ

অতঃপর মুক্তমনার অনেক পাঠকের অনুপ্রেরণায় যখন আমি ‘কলম হাতে নেয়ার’ সিদ্ধান্ত নিই, প্রথমেই মনে পড়ে 'ধর্মকারী ওয়েব সাইটের' নাম। কারণ 'ধর্মপচারকের' মত আমিও বিশ্বাস করি ধর্মের কদর্য ও কুৎসিত রূপটিকে সাধারণের কাছে পোঁছে দিতে হলে 'Political Correctness' ও অসাধুতার আশ্রয় পরিহার করেই তা করতে হবে। কোন রূপ কপটতার (Hypocrisy) আশ্রয় না নিয়ে সত্য-কে সহজ ও সরলভাবে সাধারণের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করতে হবে। 'কুরানে বিগ্যানের' প্রথম পর্ব তাঁর কাছে পাঠাই। তিনি তা প্রকাশ করেন ২০১২ সালের ২৫শে জুন।

অতঃপর, কালের পরিক্রমায় প্রায় সাড়ে ছয় বছর কেটে গেছে। তিনি আমার প্রত্যেকটি লেখার প্রুফ রিড করেছেন, বিভিন্ন সময়ে অনুবাদে সাহায্য করেছেন, পরামর্শ ও অনুপ্রেরণা যুগিয়েছেন। আমার প্রতিটি লেখায় তাঁর হাতের ছোঁয়া আমি অনুভব করি।

গত ১১ই মে তাঁর এক ই-মেইল পাই:

On Thursday, May 11, 2017 8:55 PM, ধর্মপচারক wrote:

ফুড পয়জনিং-এ আক্রাণ্ত হবার পর থেকে খুব কাহিল হয়ে পড়েছি। তাই ধর্মকারীর কাজ প্রায় বন্ধই রাখতে হয়েছে। তবে রিকভার করছি ইতোমধ্যেই :)

কর্মব্যস্থতায় প্রতিদিন ই-মেইল এ বসা হয় না। ১৩ই মে ই-মেইল চেক করে তাঁর এই খবর-টি জানলাম। জবাবে লিখলাম:

ক'দিন থেকেই আপনার জন্য চিন্তা হচ্ছিল। মনে করছিলাম ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত আছেন। শরীরের প্রতি ভালভাবে যত্ন নেবেন। আগে শরীর, পড়ে বাঁকি সব। ফুড পয়জনিং এ water-fluid balance টা খেয়াল রাখা দরকার। আপনার বিশ্রাম দরকার।
ভাল থাকুন।

১৬ই মে থেকে ধর্মকারী বন্ধ আছে। ধারণা করেছিলাম, তিনি রিকভার করেছেন। বিশ্রামে আছেন। কিন্তু মনে স্বস্তি পাচ্ছিলাম না। ২২শে মে তাঁর কাছে ই-মেইল পাঠালাম:

ধর্মপচারক,
কেমন আছেন? দুশ্চিন্তা হচ্ছে, আশা করি সুস্থ আছেন। সব কিছু ঠিক আছে তো?
পর্ব-১৭০ পাঠালাম। ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন। শুভ কামনায়,
/গোলাপ

এরপর পেলাম সেই বিষাদের খবর। ২৪শে মে, সৈকত চৌধুরীর এক ছোট্ট ই-মেইল:

ভাই, একটা খারাপ খবর আছে। একজন নিধার্মিক হার্ট এটাক করে মৃত্যুবরণ করেছেন। বেশ জিনিয়াস একজন মানুষ ছিলেন।
সৈকত

ধুক করে উঠলো মনটা! "কে সে? ধর্মপচারক নয় তো?"
পরে নরসুন্দর ও সৈকতের কাছে জানলাম, "হ্যাঁ, তিনিই!"

তাঁর সাথে ই-মেইল ছাড়া অন্য কোন মাধ্যমে কখনই কোন যোগাযোগ হয় নাই। লেখালেখির বিষয় ছাড়া এই দীর্ঘ সময়ে কখনোই তাঁর সাথে কোনরূপ ব্যক্তিগত বিষয়ে আলাপ হয় নাই। তাঁর কণ্ঠ কখনোই শোনা হয় নাই! তিনি আমার ব্যক্তিগত বা পারিবারিক বিষয়ে কখনোই কোন কিছু জানতে চান নাই, আমিও না। লেখা পোষ্ট করার প্রাসঙ্গিক কয়েকটি ই-মেইলে তিনি জানিয়েছিলেন যে "তিনি একা! সঙ্গে কেউ নেই!"

গত তিন দশকের ও অধিক সময় চিকিৎসা পেশায় নিয়োজিত আছি! ছয় বছরের অধিক সময় ব্যাপী বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত দেশের একটিতে জরুরী চিকিৎসা বিভাগের প্রধানের দায়িত্বে ২৪/৭/৩৬৫ দিন কর্মরত থেকেছি। ফুড পয়জনিং-এ আক্রান্ত ব্যক্তিদের Fluid-elctrolyte Control অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই শারীরিক অসুস্থতায় হতে পারে শরীরের অত্যধিক পানি সংকট, পরিণামে হতে পারে নিম্ব রক্তচাপ (Hypovolemic shock) ও এলোমেলো মানসিক অবস্থা (Disorientation); যা বন্ধ করে দিতে পারে হৃৎপিণ্ডের স্পন্দন ও মগজের (Brain) কার্যক্ষমতা। এই শারীরিক অসুস্থতায় কমে যেতে অথবা বেড়ে যেতে পারে পটাশিয়ামের মাত্রা (‘Hypokalemia’ or ‘Hyperkalemia’), এ দুটোর যে কোন একটির অবস্থান শরীরের জন্য অত্যন্ত ভয়াবহ! পরিণামে ঘটায় Cardiac Ventricular arrhythmia অথবা Sudden cardiac death! এমনও হতে পারে যে তিনি যাকে 'ফুড পয়জনিং' বলে চিহ্নিত করেছিলেন, আদৌ তা ছিলো না। তা ছিলো তাঁর হার্ট এট্যাকের (Acute Myocardial Infarction) এক অস্বাভাবিক উপসর্গ (Atypical symptom)!

অপরাধ-বোধে ভুগছি! কেন তাঁর সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে জানার চেষ্টা করলাম না, "কী ছিলো তাঁর শারীরিক সমস্যা!" যদি আমি তাঁর সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে সঠিক পরামর্শ দিতে পারতাম, আর তিনি সেই পরামর্শটি গ্রহণ করে তাঁর নিকটস্থ 'জরুরী চিকিৎসা বিভাগে' অতিসত্বর যোগাযোগ করে উপযুক্ত চিকিৎসা গ্রহণ করতেন, তবে তিনি হয়তো তাঁর জীবনের এই অকাল পরিসমাপ্তি থেকে রক্ষা পেতেন!

প্রতিটি মানুষের জীবনেই এমন কিছু কষ্ট থাকে যা সে সারা জীবন বয়ে বেড়াই এক দুঃসহ স্মৃতি নিয়ে। আমার এই অপরাধ-বোধ ও প্রিয়জন হারানোর বেদনা আমাকে সারা জীবন বয়ে বেড়াতে হবে।

আমি প্রস্তুত!

৬টি মন্তব্য:

  1. নিয়মিত ধর্মকারী পড়ছি দুবছর। ধর্মপচারক পচিয়ে গেছেন সকল ধর্মকে অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে,যা সময়ের সাথে নাস্তিক হয়ে উঠতে সাহায্য করেছে আমায়।ধর্মপচারকের সৌজন্যে কিছু অসাধারণ লেখা পড়ার সুযোগ হয়েছে যা জীবন সম্পর্কে দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনে সাহায্য করেছে বিশেষভাবে।

    উত্তরমুছুন
  2. এম.আর.লোহানী২ জুন, ২০১৭ ৪:৩৯ PM

    বুকটা হু..হ...করে উঠছে

    উত্তরমুছুন
  3. এম.আর.লোহানী২ জুন, ২০১৭ ৪:৪৯ PM

    আমি একজন সামান্য পাঠক।গত কয়দিন আগে আমার আইডি হেক্ড হওয়াতে যোগাযোগ করতে পারছিলাম না।নতুন আইডি করার পরে ঠিক বুঝতে পারছিলামনা,কেন যোগাযোগ করতে পারছিনা বা নতুন কোন লিখা পাচ্ছিনা।যখন পেলাম,তখন চারিদিকে শুধুই শূন্যতা।এই ওয়েবপেজ থেকে আপনাদের আর লিখা পাবোনা?

    উত্তরমুছুন
  4. আমি একজন মধ্যবয়স্ক সরকারী চাকরিজীবি।
    গত চারপাঁচ বছর থেকে নিজের আগ্রহে যতটুকু সম্ভব ফেসবুক বা বিভিন্ন ওয়েবপেজের মাধ্যমে জানার চেষ্টা করে আসছি।যদিও এই বয়সে এসে আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে জ্ঞান খুব একটা বেশী অর্জন করতে পারিনি।হঠাৎ একদিন ধর্মকারী,ইস্টিশনসহ বেশক'জনকে খুঁজে পেলাম,যা আমি মনে মনে খুঁজছিলাম।গত একবছর থেকে নিজের জীবনটা পাল্টে গেল।
    পড়তাম আর শেয়ার করতাম।ব্লক করে রাখতে হত ভয়ে,চাকরির কারণে।মাঝে মাঝে অফিসে কলিগদের সাথে আলোচনা করতাম।
    সকলে বাঁকা চোখে দেখে জন্যে আড়াল করে
    রাখি নিজেকে।কিছুদিন আগে আমার আইডিটা হেক্ড হয়ে যায়।হতাশ হয়ে গেলাম।
    আমার জমানো সবকিছু এভাবে নষ্ট হয়ে গেলো।কিন্তু না,বসে থাকলে হবেনা।নতুন আইডি খুললাম।আবার পড়া শুরু করলাম।কিন্তু গত ১৬ই মে-র পরহতে কিছু পাচ্ছিনা কেন?প্রযুক্তি না জানার কারণে সবকিছু হারিয়ে ফেললাম নাতো?হঠাৎ
    মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ল।একি শুনলাম!বুকের ভেতরটা এমনভাবে মোচড় দিলো যে,চোখে হয়তোবা পানিও চলে আসলো।আমি
    কি আর আমার বিশ্বাসের পক্ষে কোন লিখা
    পড়তে পারবনা?কিছুই বুঝে উঠতে পারছিনা
    এখন পর্যন্ত।আমি লিখতে পারিনা,তাই পড়তে
    ভালবাসি।আর তাই,অনুভূতিটাও ঠিকমতন
    ব্যাখ্যা করতে পারলামনা।ভীষন কষ্ট পাচ্ছি।

    উত্তরমুছুন
  5. আমি এই সাইটে নতুন, মাস খানিক হলো। dhormockery.com এ গিয়ে বসে থাকতাম আর ভাবতাম লেখা আপডেট হয়না কেনো?
    তার চলে যাওয়া আমাকেও ব্যাতিত করেছে।
    বিনম্র শ্রদ্ধা তার প্রতি........ TtruthToSaveGeneration(TTSG)

    উত্তরমুছুন